ঢাকা,  বুধবার
২৯ মে ২০২৪

The Daily Messenger

রক্ষণাবেক্ষনের জন্য বন্ধ থাকবে শেভরনের বিবিয়ানা গ্যাসক্ষেত্র

মেসেঞ্জার অনলাইন

প্রকাশিত: ১১:১৪, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

রক্ষণাবেক্ষনের জন্য বন্ধ থাকবে শেভরনের বিবিয়ানা গ্যাসক্ষেত্র

ছবি : সংগৃহীত

রক্ষণাবেক্ষনের জন্য ঈদের দুদিন পর শেভরনের বিবিয়ানা গ্যাসক্ষেত্র বন্ধ থাকবে। এতে এদিন গ্যাস সংকটের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। আর গ্যাস সংকট হলে বিদ্যুতের ও সংকট হবে।

তবে পেট্রোবাংলা বলছে, শনিবার (১৩ এপ্রিল) কলকারখানা বন্ধ থাকবে; চাহিদা কম থাকবে; সমস্যা হবে না।

পেট্রোবাংলা থেকে জানা গেছে, ঈদের দিন অর্থাৎ ১১ই এপ্রিল বিবিয়ানা রক্ষনাবেক্ষণের কথা ছিল। কিন্তু সামিটের এলএনজি টার্মিনাল বিকল হওয়ায় দুইদিন পিছিয়ে দেয়া হয়েছে।

সামিটের টার্মিনাল বিকল হওয়ায় জাহাজে করে এলএনজি আনার পরও তা পাইপ লাইনে দেয়া যাচ্ছে না। এখন এলএনজি নিয়ে সমুদ্রে জাহাজ অপেক্ষা করছে।

পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান জনেন্দ্র নাথ সরকার এনার্জি বাংলাকে জানান, এলএনজি সরবরাহ ও বিবিয়ানা একই সাথে বন্ধ হলে গ্যাস সংকট দেখা দিত। তাই বিবিয়ানায় মেরামতের কার্যক্রম পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। সামিটের টার্মিনাল মেরামতের কাজ চলছে। আশা করা হচ্ছে এই সময়ের মধ্যে সামিটের টার্মিনাল মেরামত হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, ঈদের সময় সব কলকারখানা বন্ধ থাকে। গ্যাসের চাহিদাও কম থাকে। তাই এতে কোন বিরূপ প্রভাব পড়বে না। এলএনজির অন্য টার্মিনাল থেকে পুরোপুরি গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

৯ই এপ্রিল শেভরনের বিবিয়ানা গ্যাসক্ষেত্র থেকে দেশের মোট চাহিদার ৩৮ শতাংশ গ্যাস সরবরাহ করা হয়েছে। যার পরিমাণ ১০১ কোটি ঘনফুট। সামিটের টার্মিনাল থেকে সরবরাহ করা হয় গড়ে ৫০ কোটি ঘনফুট। যা মোট সরবরাহে প্রায় ২০ ভাগ। অন্য সচল এলএনজি টার্মিনাল থেকে এদিন ৬১ কোটি ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ করা হয়েছে।

মেসেঞ্জার/ফামিমা

Advertisement