ঢাকা,  মঙ্গলবার
০৫ মার্চ ২০২৪

The Daily Messenger

শিরোনাম:

* মানুষের দোরগোড়ায় স্মার্ট ডাক সেবা পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর : পলক * কৌশলে কখনো কখনো পিছু হটতে হয় : ফারুক * নাটোরে অ্যাম্বুলেন্সে মিললো গাঁজা ফেনসিডিল * বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর সাথে ভারতের হাইকমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ * চট্টগ্রামে সুগার মিলে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ২০ ইউনিট * পাকিস্তানে প্রবল বৃষ্টি ও তুষারপাতে ২৭ জনের মৃত্যু * ধানমন্ডির টুইন পিক টাওয়ারের ১২ রেস্তোরাঁ সিলগালা * অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে সাইনবোর্ড টানানোর নির্দেশ হাইকোর্টের * দেশের অর্থনীতি নিয়ে মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়ানো হচ্ছে : অর্থমন্ত্রী * মালয়েশিয়ায় ট্রেনের ধাক্কায় নিহত ৩ বাংলাদেশি * আফ্রিকার বুরকিনা ফাসোতে হামলা, নিহত ১৭০ * ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা * ২০৪১ সালের মধ্যে বিজিবি হবে বিশ্বমানের স্মার্ট সীমান্ত বাহিনী : প্রধানমন্ত্রী * বেইলি রোডে আগুন : উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন হাইকোর্টের

খাগড়াছড়িতে আ.লীগ-বিএনপি সংঘর্ষ, আহত শতাধিক

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬:২১, ১৮ জুলাই ২০২৩

খাগড়াছড়িতে আ.লীগ-বিএনপি সংঘর্ষ, আহত শতাধিক

খাগড়াছড়িতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে ছবি : সংগৃহীত

খাগড়াছড়িতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশরাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়ছে। সংঘর্ষে উভয়ের অন্তত শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এ সময় ৮টি মোটর সাইকেলে অগ্নিসংযোগ করা হয়। পৌরসভা ভবনে ব্যাপক ভাংচুর করা হয়। ৩ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলা এ তাণ্ডবে পুলিশ ছিল নিস্ত্রিয়। শহরের ভাংগা ব্রীজ থেকে শাপলা চত্বর পর্যন্ত বিএনপির নেতাকর্মীরা দখল করে রেখেছে।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমএন আফসার অভিযোগ করেন, পদযাত্রা কর্মসূচির প্রস্তুতির সময় সকাল সোয়া ১০টার দিকে খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির অফিসে আওয়ামী লীগের নেতকর্মীরা হামলা চালায়। এতে বেশ বিএনপির নেতা হোসেন মো. বাবুসহ বেশ কয়েক বিএনপির নেতাকর্মী আহত হয়। 

পরে বিএনপির নেতাকর্মী সংঘবদ্ধ হয়ে আওয়ামী লীগের অফিসে হামলা চালালে জেলা আওয়ামী লীগের উপদপ্তর সম্পাদক নরুল আজমসহ বেশ কয়েকজন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী আহত হয়।এরপর পুরো শহরে ৩ ঘণ্টা ধরে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। 

এ সময় বিএনপির নেতাকর্মীরা ৮টি মোটর সাইকেলে অগ্নিসংযোগ  করা হয়। হামলা চালিয়ে পৌরসভা ভবনে ব্যাপক ভাংচুর করা হয়। সংঘর্ষ চলাকালে হামলায় উভয়পক্ষ বাঁশ-লাঠি ও লোহার রড ব্যবহার করে। দীর্ঘ ৩ ঘণ্টা ধরে শহরে চলা এ সংর্ঘষে পুলিশ ছিল নিরব দর্শকের ভূমিকায়। 

এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত সংঘর্ষ চলছে। পরে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়া শুরু করে। এ পর্যন্ত উভয়ের অন্তত শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছে। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় উপজেলা শহরেথমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।শহরে যানবাহন চলাচল ও ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিএনপি আমাদের পূর্বঘোষিত কর্মসূচিতে এসে হামলা করেছে। এতে আমাদের ৫০ এর বেশি নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। তবে এ সময়  সংঘর্ষ থামানোর জন্য পুলিশের সহায়তা চাইলে পুলিশ নিস্ক্রিয় ভূমিকা পালন করে। আমি পুলিশ সুপার ও জেলাপ্রশাসককে একাধিকবার ফোন করেছি। কিন্তু প্রশাসন কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।

টিডিএম/এসএনই

×
Islamic Merchant