ঢাকা,  শনিবার
২০ এপ্রিল ২০২৪

The Daily Messenger

লক্ষ্মীপুরে ১২০ টাকায় পুলিশে নিয়োগের প্রতিশ্রুতি দিলেন পুলিশ সুপার

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৬:০৭, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

লক্ষ্মীপুরে ১২০ টাকায় পুলিশে নিয়োগের প্রতিশ্রুতি দিলেন পুলিশ সুপার

ছবি : মেসেঞ্জার

লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারেক বিন রশিদ ১২০ টাকায় পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে দ্য ডেইলি মেসেঞ্জারকে তিনি এই প্রতিশ্রুতির বিষয়টি নিশ্চিত করেন। 

জানা যায়, লক্ষ্মীপুর জেলায় ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) নিয়োগে আগামী ২০, ২২ ও ২৩ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা থেকে প্রিলিমিনারি স্ক্রিনিং এ উত্তীর্ণ প্রার্থীগণের লক্ষ্মীপুর পুলিশ লাইন্স মাঠে পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগের প্রাথমিক বাছাই অনুষ্ঠিত হবে। পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগে কারো সাথে কোন প্রকার আর্থিক লেনদেন না করার জন্য জেলা পুলিশ সুপারের পক্ষ থেকে গত কয়েকদিন থেকে জেলা জুড়ে মাইকিং করা হচ্ছে।

এছাড়াও সোশাল মিডিয়ায় এবিষয়ে ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছেন পুলিশ সুপার। লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশের ফেসবুক পেইজে এ সংক্রান্ত একটি লেখা পোস্ট করা হয়। তাতে উল্লেখ করা হয়- কনস্টেবল নিয়োগ সংক্রান্তে অনৈতিক সুবিধা প্রদানকারী ও গ্রহণকারী উভয়ের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনানুসারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কনস্টেবল পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনো ব্যাক্তি কোনো প্রকার আর্থিক লেনদেনে জড়িত হলে গ্রেপ্তার ও নিয়োগ বাতিল করা হবে।

কনস্টেবল নিয়োগ সংক্রান্তে কোনো প্রার্থী আর্থিক লেনদেন করে প্রতারিত হবেন না। নিয়োগ সংক্রান্তে প্রতারক ও দালাল চক্রের কোনো তথ্য পেলে সরাসরি পুলিশ সুপার, লক্ষ্মীপুর অথবা লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ কন্ট্রোল রুমকে (০১৩২০-১১২৮৯৮) অবহিত করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারেক বিন রশিদ বলেন, লক্ষ্মীপুরে মোট ৪৪ জন কনস্টেবল নিয়োগ করা হবে। তার মধ্যে ৩৭ জন পুরুষ কনস্টেবল এবং ৭ জন নারী কনস্টেবল পদে নিয়োগ হবে। এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ স্বচ্ছ ও মেধা এবং যোগ্যতার ভিত্তিতে সম্পূর্ণ হবে।

সরকার নির্ধারিত ১২০ টাকা আবেদন পত্রের সাথে পে-অর্ডারের মাধ্যমে জমা দিয়ে আবেদন করতে হবে। এরপর ২০ ফেব্রুয়ারি লক্ষ্মীপুর পুলিশ লাইনে সকল আবেদনকারীর কাগজপত্র যাচাই-বাছাই এবং ২২ ফেব্রুয়ারি শারীরিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ শেষে উত্তীর্ণদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ করা হবে প্রার্থীর শারীরিক ফিটনেস প্রমান সাপেক্ষে মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে। এ সময় তিনি জেলাবাসীকে সচেতন করতে জোর দিয়ে বলেন, যার চাকরি হবে তার মাত্র ১২০ টাকার বিনিময়ে চাকরি হবে। এখানে অন্য কিছু করার কোন সুযোগ নেই। এ ব্যাপারে কোন তদবির বা সুপারিশ কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

মেসেঞ্জার/শিবলু/শাহেদ

dwl
×
Nagad