ঢাকা,  বৃহস্পতিবার
১৮ জুলাই ২০২৪

The Daily Messenger

ডিজিটাল মার্কেটিং করে সফল তরুণ উদ্যোক্তা আতিকুর রহমান 

মেসেঞ্জার অনলাইন

প্রকাশিত: ১১:১৭, ২৭ মে ২০২৪

আপডেট: ১১:২৬, ২৭ মে ২০২৪

ডিজিটাল মার্কেটিং করে সফল তরুণ উদ্যোক্তা আতিকুর রহমান 

ছবি: সংগৃহীত

তরুণরা দেশের সম্পদ। তবে অধিকাংশ শিক্ষিত তরুণ চাকরি নামক সোনার হরিণের পেছনে ছুটতে গিয়ে বেকারের খাতায় নাম লেখান। তারা সম্পদে রূপান্তর না হয়ে দেশের বোঝা হয়ে যান। এমন সংকটে ১৮ বছর বয়সেই ডিজিটাল মার্কেটিং করে সফল হওয়ার চেষ্টায় তরুণ উদ্যোক্তা আতিকুর রহমান।

প্রযুক্তির হাত ধরে মানুষ যেভাবে অনলাইনের উপর নির্ভরশীল হচ্ছে, তাতে নিশ্চিতভাবে বলা যায় ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের গুরুত্ব দিন দিন বেড়েই চলেছে। যার ফলে অনেক তরুণই ক্যরিয়ার হিসেবে ডিজিটাল মার্কেটিংকে বেছে নিচ্ছেন। কারণ এ ক্যারিয়ার একজন মানুষকে একদিকে যেমন প্রযুক্তিপ্রেমী করে তুলছে, অন্যদিকে জীবনকে করে তুলছে স্বাচ্ছন্দ্যময়।

এমনই এক তরুণ উদ্যোক্তা ও ডিজিটাল বিপণনকারী আতিকুর রহমান। নিজের নামেই একটি ফেসবুক পেজ দিয়ে কাজ শুরু করেছিলেন এ তরুণ। দেখতে দেখতে দীর্ঘ পথচলায় এখন তিনি বাংলাদেশের সাইবার সিকিউরিটি এবং ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে পরিচিত।

বর্তমান যুগের ডিজিটাল মার্কেটিংকে বিশাল একটি সম্ভাবনার ক্ষেত্র বলে মনে করেন আতিকুর রহমান। তিনি বলেন, 'দিন দিন এর গুরুত্ব বাড়ছে। ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে কাজ শুরু করতে চাইলে প্রথমে তার দক্ষতা বাড়াতে হবে। কারণ সঠিক জ্ঞান নিয়ে এ সফলতার দিকে এগিয়ে যাওয়া যায়।'

"উদাহরণস্বরূপ, ইন্টারনেটে চাঁদাবাজদের একটি দল বর্তমানে অর্থ দাবি করছে এবং Facebook সাইটে মিথ্যা কপিরাইট ব্যবহার করার হুমকি দিচ্ছে। অনেক লোকের YouTube অ্যাকাউন্ট এবং Facebook পেজগুলিও হ্যাক করা হচ্ছে। আপনি যদি তাদের সম্পর্কে আমাদের জানান তাহলে আমরা আইটেমগুলি পুনরুদ্ধার করব। আমি  এছাড়াও সাইবার-সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ে কাজ করে", তিনি যোগ করেন।

আতিকুর রহমান বলেন, "সাইবার জগতে মানুষের প্রবেশাধিকার প্রতিদিনই বাড়ছে, এবং ভবিষ্যতে তা বাড়তেই থাকবে। এর ফলে যে কেউ সাইবার অপরাধের শিকার হচ্ছেন কোনো না কোনোভাবে। তবে দেশের অধিকাংশ  এর জনসংখ্যা সাইবার নিরাপত্তা সম্পর্কে অবগত নয়, এবং যখন তারা এটির শিকার হয়, তারা এর বিরুদ্ধে সতর্কতা অবলম্বন করতে ব্যর্থ হয় তবে কেউ যদি প্রতারণার শিকার হয় এবং আমাদের জানায়, তাহলে আমরা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করি।"

তিনি আরও বলেন, এরপর অনুসন্ধান করতে হবে প্রতিনিয়ত চোখ-কান খোলা রেখে। পাশাপাশি জানতে হবে বিভিন্ন টুলসের ব্যবহার। কী ধরনের কনটেন্ট পছন্দ করছে মানুষ, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।তরুণরা দেশের সম্পদ। তবে অধিকাংশ শিক্ষিত তরুণ চাকরি নামক সোনার হরিণের পেছনে ছুটতে গিয়ে বেকারের খাতায় নাম লেখান। তারা সম্পদে রূপান্তর না হয়ে দেশের বোঝা হয়ে যান। এমন সংকটে ১৮ বছর বয়সেই ডিজিটাল মার্কেটিং করে সফল হওয়ার চেষ্টায় তরুণ উদ্যোক্তা আতিকুর রহমান।

মেসেঞ্জার/ফামিমা