ঢাকা,  মঙ্গলবার
১৬ এপ্রিল ২০২৪

The Daily Messenger

বেইলি রোডের অগ্নিকাণ্ড:

পুড়ে যাওয়া ৬ মরদেহ চেনার উপায় নেই, হবে ডিএনএ টেস্ট

মেসেঞ্জার অনলাইন

প্রকাশিত: ১৯:০৫, ১ মার্চ ২০২৪

আপডেট: ১৯:০৮, ১ মার্চ ২০২৪

পুড়ে যাওয়া ৬ মরদেহ চেনার উপায় নেই, হবে ডিএনএ টেস্ট

পরিবারের কাছে হস্তান্তর হয়েছে ৩৫ মরদেহ। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর বেইলি রোডের গ্রিন কোজি কটেজ ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহতদের মধ্যে ছয়জনকে আর চেনার কোনো উপায় নেই বলে জানিয়েছে পুলিশ। এদেরকে ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে শনাক্ত করার মাধ্যমে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। তাদের মরদেহ ঢাকা মেডিকেলের মর্গে রাখা হয়েছে।

শুক্রবার (১ মার্চ) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, নিহতদের মধ্যে ৬ জনের মরদেহ শনাক্ত হয়নি। তাদের পরিচয় শনাক্তে ডিএনএ নমুনা নেয়া হবে।

এর আগে শুক্রবার সকালে ঢাকা মেডিকেল ও শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউট পরির্দ্শন করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সামান্ত লাল সেন জানিয়েছেন, অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৬ জনে।

নিহত সবার মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নিয়ে রাখা হয়। শুক্রবার সকাল থেকে লাশের পরিচয় নিশ্চিত করে ৩৫ জনের মরদেহ স্বজনের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টার দিকে বেইলি রোডের গ্রিন কোজি কটেজ নামের ভবনটিতে আগুন লাগে। ভবনটির দ্বিতীয় তলায় ছিল বিরিয়ানির পরিচিত খাবার দোকান ‘কাচ্চি ভাই’ এর শাখা, পোশাকের ব্র্যান্ড ইলিয়েন, নিচের তলায় স্যামসাং এর শোরুমসহ আরও বেশ কিছু দোকান। স্যামসাংয়ের শোরুমের পাশে রয়েছে একটি কফি শপ। এরকম কফির দোকানসহ ফাস্টফুডের অনেকগুলো দোকান ও রেস্তোরাঁ রয়েছে ভবনটিতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে।

প্রায় দুই ঘণ্টার চেষ্টায় রাত ১১টা ৫০ মিনিটের দিকে আগুন নিভিয়ে আনতে সক্ষম হয় ফায়ার সার্ভিস। এরপরই আসতে থাকে একের পর এক মৃত্যুর খবর।

মেসেঞ্জার/হাওলাদার

dwl
×
Nagad