ঢাকা,  মঙ্গলবার
০৫ মার্চ ২০২৪

The Daily Messenger

শিরোনাম:

* মানুষের দোরগোড়ায় স্মার্ট ডাক সেবা পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর : পলক * কৌশলে কখনো কখনো পিছু হটতে হয় : ফারুক * নাটোরে অ্যাম্বুলেন্সে মিললো গাঁজা ফেনসিডিল * বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর সাথে ভারতের হাইকমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ * চট্টগ্রামে সুগার মিলে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ২০ ইউনিট * পাকিস্তানে প্রবল বৃষ্টি ও তুষারপাতে ২৭ জনের মৃত্যু * ধানমন্ডির টুইন পিক টাওয়ারের ১২ রেস্তোরাঁ সিলগালা * অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে সাইনবোর্ড টানানোর নির্দেশ হাইকোর্টের * দেশের অর্থনীতি নিয়ে মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়ানো হচ্ছে : অর্থমন্ত্রী * মালয়েশিয়ায় ট্রেনের ধাক্কায় নিহত ৩ বাংলাদেশি * আফ্রিকার বুরকিনা ফাসোতে হামলা, নিহত ১৭০ * ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা * ২০৪১ সালের মধ্যে বিজিবি হবে বিশ্বমানের স্মার্ট সীমান্ত বাহিনী : প্রধানমন্ত্রী * বেইলি রোডে আগুন : উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন হাইকোর্টের

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বন্যায় ডুবেছে ফসলের মাঠ, ক্ষতিগ্রস্থ প্রায় ১৪ হাজার কৃষক

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৯:০৭, ৫ অক্টোবর ২০২৩

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বন্যায় ডুবেছে ফসলের মাঠ, ক্ষতিগ্রস্থ প্রায় ১৪ হাজার কৃষক

ছবি : মেসেঞ্জার

কয়েকদিন থেকেই যেন থেমে থেমে হচ্ছে বৃষ্টি, একটু বিরতি তো আবার অনেকক্ষন টানা ঝড়ছে বৃষ্টির ধারা। এমন বর্ষনমুখর প্রকৃতিকে অনেকেই তুলনা করছেন আশ্বিনা ডাওরের সাথে। প্রকৃতির এমন রুপ অনেকের কাছে যেমন উপভোগ্য, অন্যদিকে মাথা ব্যাথার কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে খেটে খাওয়া মানুষ কৃষকের কাছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জে অনেক কৃষকের কষ্টের ধান ডুবে গেছে টানা বৃষ্টির কারনে।

বৃহস্পতিবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার রুহুল বাধ এলাকায় অগ্রনী সেচ প্রকল্পের ফসলের মাঠের পাশে ছাতা নিয়ে দাঁড়িয়ে দেখা যায় জনা দশেক কৃষক। তাদের রোপা আমনের ক্ষেতে গতকালও উকি দিচ্ছিল শীষ। ওই মাঠসহ আশে পাশের মাঠের ধান ডুবে গেছে যেন একদিনের ব্যবধানে বৃষ্টির পানিতে। সব মিলিয়ে ওই এলাকায় প্রায় এক হাজার বিঘা জমির ধান ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে জানান কৃষকরা।

অগ্রনী সেচ প্রকল্পের সাবেক সভাপতি আলাউদ্দীন জানান, অগ্রনী সেচ প্রকল্পের আওতায় কামারের মাঠ, ডাগরা চাঁইপাড়া, সেহালা, মহাডাঙ্গা, সাহাবির বিল, সুড়কিজল সহ বেশ কিছু এলাকার ৭০০ বিঘা জমির ধান ডুবে গেছে, পানি কমলেও অন্তত ৬০-৭০ ভাগ ধান নষ্ট হয়ে যাবে। তিনি বলেন, ‘‘ এখন প্যাটে শীষ হয়্যা গেছে ধান গাছেন, তার শীষে পানি ঢুক্যা গেলে ওই ধান আর হবে না নষ্ট হয়্যা যাবে, পানি নামলেও ঢুব্যা যাওয়া জমির ধান খুব ভাল হবে না, ১০ আনায় নষ্ট হয়্যা যাবে। ’’

এসময় কথা হয়, তরিকুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক, আব্দুল মজিদ , আব্দুল হান্নান নামে আরো কয়েকজন কৃষককের সাথে। তারা বলেন,সব কিছু খরচ করে ধান লাগিয়েছিলেন, ভালই ছিলো, কিন্ত আশ্¦িনা ডাওরে যে সব কিছু শ্যাষ হয়া যাবে কে জানত। এখন কিছুই করার নাই।

আব্দুর রাজ্জাক নামে এক কৃষক বলেন, জমির মালিকের তো কোন ক্ষতি হবে না, যা মরন আধি কৃষকের হামার মত যারা জমি আধি করি তারা টাকা খরচ কর্যা বীছন, সাহার দিয়্যা ফলসটা করছিনু, ধানটা সারা বছরের মুখের দানা, কিন্ত এখন তো পানিতে ডুব্যা গেল। যা খরচ হয্যাছে সবই পানিতে গেলে। জমির মালিক তো এ্যাতো কিছু বুঝবে না।

শুধু চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় না, বৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে, অনান্য উপজেলার ফসলী জমি। চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানিয়েছে মাঠের রোপা আমন, ছাড়াও ক্ষতি হয়েছে মাসকলাই,গ্রীষœকালীন পেয়াজ, পেয়াজের বীজতলা, নাবী পাট বীজ, তিলসহ বিভিন্ন শাকসবজির ক্ষেত।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক . পলাশ সরকার জানান,বুধবার রাত-১০ থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা পযন্ত জেলায় ৮১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। বৃষ্টিতে জেলার ১৪ হাজার ৩৪২ জন কৃষকের প্রায় হাজার ১৪৫ হেক্টর জমির ফলস ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের আগামীতে সরকারি বিভিন্ন প্রনদনার মাধ্যমে সহযোগিতা করা হবে।

মেসেঞ্জার/নাহিদ/আপেল

×
Islamic Merchant