ঢাকা,  মঙ্গলবার
১৬ এপ্রিল ২০২৪

The Daily Messenger

মাঘের শীতকে উপেক্ষা করে চলছে বোরো ধান চাষ

চাষের লক্ষমাত্রা ১০ হাজার ১৯৫ হেক্টর

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৫:০১, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

আপডেট: ১৫:০৮, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মাঘের শীতকে উপেক্ষা করে চলছে বোরো ধান চাষ

ছবি : মেসেঞ্জার

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে মাঘের ঠান্ডাকে উপেক্ষা করে এখানকার ছয়টি ইউনিয়নে শেষ মহুর্তের বোরো চাষের কর্মব্যস্ততা শুরু হয়েছে কৃষকদের।

বোরো ধান ক্ষেত তৈরিতে হালচাষ, সেচ, বীজতলা থেকে বোরো ধানচারা তুলে এনে তা জমিতে রোপণের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন এখানকার কৃষক। বোরো চাষকে উপলক্ষ করে কৃষকের সাথে এখানকার দিনমজুরাও ধান চারা রোপণে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

ফুলবাড়ী উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানায়, এবার ফুলবাড়ী উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে বোরো চাষের লক্ষমাত্রার ১০ হাজার ১৯৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষ শুরু হয়েছে। বোরা চাষের লক্ষমাত্রার অনুযায়ী এখানে শেষ মুহুর্তে হলেও বোরো ধান চারা রোপণে কৃষকের ব্যস্ততা বেড়েছে।

স্থানীয় বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার কৃষক আলতাফ হোসেন জানান, মাঘের ঠান্ডাকে উপেক্ষা করে আমি আমার ৩ বিঘা জমিতে বোরো ধানচারা রোপণ করেছি। প্রতিবিঘা জমিতে হালচাষ, সেচ, ধানচারা রোপণের শ্রমিক খরচ মিলে প্রায় ৩ হাজার টাকা করে ব্যয় হয়েছে।

উত্তর কটিচন্দ্রখানা গ্রামের কৃষক আতাউর রহমান জানান, বোরো ধান চারা রোপণের সঠিক সময় হওয়ায় আমি মাঘের তীব্র ঠান্ডা উপেক্ষা করে এক বিঘা জমিতে বোরো ধানচারা রোপণ করেছি। আমার নিজের কলের লাঙল থাকায় তুলনামূলকভাবে চাষে ব্যয় কম হচ্ছে।

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নিলুফা ইয়াছমিন জানান, এবার ফুলবাড়ী উপজেলায় বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১০ হাজার ১৯৫ হেক্টর জমি। এসব জমিতে কৃষকরা পুরোদমে বোরো ধান চারা রোপণ করছেন। এ পর্যন্ত ৭০ ভাগ জমিতে বোরো ধান চারা রোপণ হয়েছে বলেও জানান তিনি।

মেসেঞ্জার/ইউনুছ/আপেল

dwl
×
Nagad