ঢাকা,  রোববার
১৪ জুলাই ২০২৪

The Daily Messenger

মেডিকেল ও ডেন্টালে ভর্তি হওয়া শতাধিক শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা

বগুড়া প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৯:৫০, ১৪ জুন ২০২৪

মেডিকেল ও ডেন্টালে ভর্তি হওয়া শতাধিক শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা

ছবি : মেসেঞ্জার

সারাদেশের বিভিন্ন মেডিকেল ডেন্টাল কলেজে ভর্তির সুযোগ পাওয়া বগুড়ার ১০৭ জন শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা দিয়েছে মানিকস্ বায়োলজি স্কুল।

শুক্রবার (১৪ জুন) বিকেলে শহরের জলেশ্বরীতলার গাজী কনভেনশন সেন্টারে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রতিষ্ঠানের কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে অভিনন্দন ক্রেস্ট তুলে দেন বগুড়া- আসনের সংসদ সদস্য বিএমএ বগুড়ার সভাপতি ডা: মোস্তফা আলম নান্নু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, মানব সেবার জন্য চিকিৎসা পেশাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়া হয়। যারা সত্যিকার অর্থে মানুষকে ভালোবাসে, মানুষের সেবা করে, নিজেকে একজন বড় সেবক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চায়, তাদেরই এই পেশায় আসা উচিত। যে শিক্ষা তোমরা নিতে যাচ্ছ, তা দিয়ে মানুষের সেবা করবে।

সংসদ সদস্য নান্নু শিক্ষার্থীদের সর্বপ্রথম ভালো মানুষ হতে বলেন। তিনি বলেন, কেউ যদি নিজেকে প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারে তাহলে সে এমনিতেই একজন ভালো চিকিৎসক হিসেবে সমাজে প্রতিষ্ঠা পাবে। পৃথিবীর সব পেশার চেয়ে চিকিৎসা পেশাতে মানুষকে সরাসরি সেবা করার সুযোগ রয়েছে যা অত্যন্ত সৌভাগ্যের।

মানিকস বায়োলজির প্রতিষ্ঠাতা আমিনুল ইসলাম মানিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- গাজী রিয়েল স্টেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসরিন সুলতানা, বগুড়া সদর উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা স্বাচিপ বগুড়ার সভাপতি ডা: সামির হোসেন মিশু, জলেশ্বরীতলা ব্যবসায়ী কল্যান সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডোনিস বাবু তালুকদার এবং জলেশ্বরীতলা শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান রজীব।

অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত শিক্ষার্থীরা জানান, মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাওয়া সত্যিই অনেক চ্যালেঞ্জের ছিল। দিনরাত কঠোর পরিশ্রমের মধ্য দিয়ে তাদের এই নতুন যাত্রা শুরু হয়েছে। তাদের প্রস্তুতিতে মানিকস বায়োলজি যেভাবে তাদের পাশে থেকেছে তাদের সঠিক দিক নির্দেশনায় শুধুমাত্র মানিকস বায়লোজি থেকেই তারা ১০৭ জন স্বনামধন্য মেডিকেল ডেন্টাল কলেজে ভর্তি সুযোগ পেয়েছে যা সত্যিই প্রশংসনীয়।

চিকিৎসা পেশায় গর্বের সাথে ভবিষ্যতে মানবসেবায় ব্রতী হতে চান তারা। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন রেডিও মুক্তির স্টেশন ইনচার্জ জাহিদ হাসান।

মেসেঞ্জার/সঞ্জু/আপেল