ঢাকা,  রোববার
১৯ মে ২০২৪

The Daily Messenger

বৃষ্টির পর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে শুরু করেছে ইউএই

ইউএই প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৯:০০, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

বৃষ্টির পর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে শুরু করেছে ইউএই

ছবি : ডেইলি মেসেঞ্জার

প্রবল ভারী বর্ষণের পর স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে শুরু করেছে মরুর দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। গত সোমবার (১৫ এপ্রিল) মধ্যরাত থেকে শুরু হওয়া প্রবল ঝড় ও ভারী বর্ষণ ছিলও দেশটির ইতিহাসে ৭৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। 

অতিরিক্ত বৃষ্টির ফলে জমে থাকা জলাবদ্ধতা সবচেয়ে বেশি ভুগিয়েছে দেশটির বাসিন্দাদের। তবে গতকাল থেকে বৃষ্টি না থাকায় আজ সকাল থেকেই স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে শুরু করেছে দেশটির বাসিন্দাদের জীবনযাত্রা। দেশটির প্রদান সড়ক ও পৃথিবীর অন্যতম ব্যস্ততম দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দীর্ঘ ৪৮ ঘণ্টা পর তার পূর্বের ব্যস্ততায় ফিরছে।

সকাল থেকে বাসিন্দাদের নিজ কর্মসংস্থলে ফিরতে দেখা গেছে। তবে গণপরিবহন গুলো পুরোদমে চালু না হওয়ায় মেট্রোরেল স্টেশন ও বাসস্ট্যান্ডে গুলোতে ভিড় লক্ষণীয় ছিলও। এছাড়াও তিনদিন পর খুলতে শুরু করেছে বিভিন্ন বাণিজ্যিক মল ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো। তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো সপ্তাহের শুরুতে পুনরায় চালু হওয়ার কথা রয়েছে। 

তবে দেশটির শহত অঞ্চল ও প্রধান সড়কের পানি নিষ্কাশন করা হলেও এখনো ৭টি আমিরাতের বিভিন্ন অঞ্চলে প্রবাসীরা পানি বন্ধি অবস্থায় আছে। এবং পানি বন্ধি এলাকায় বিদ্যুৎ,ইন্টারনেট সেবা ব্যহত হওয়ার পাশাপাশি খাবারের দোকান, মুদি ও রেস্তোরাঁগুলো বন্ধ থাকায় দেখা দিয়েছে খাবার ও সুপেয় পানির সংকট। 

দুর্যোগকালীন সময়কে দ্রুত কাটিয়ে উঠতে দেশটির সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এছাড়াও দেশটিতে থাকা বিদেশি মিশনগুলো নিজস্ব উদ্যোগে নিজ নিজ দেশের নাগরিকদের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছে। ইতোমধ্যে ভারত, পাকিস্তান, ফিলিপিন তাদের নাগরিকদের সেবায় হট লাইন নম্বর চালু ও ত্রান-সাহায্য পৌঁছে দিচ্ছেন। সে তুলোনায় বাংলাদেশি মিশনগুলো অনেকটা পিছিয়ে আছে। তবে দেরিতে হলেও বাংলাদেশ কনস্যুলেট দুবাই ও উত্তর আমিরাত ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসীদের পাশে থাকর ঘোষণা দিয়েছে। 

বাংলাদেশ কনস্যুলেট তাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে জানায়, দুবাই ও উত্তর আমিরাত প্রবাসী বাংলাদেশিরা বৃষ্টিজনিত জলাবদ্ধতায় ক্ষতিগ্রস্ত হলে জরুরী ভিত্তিতে যোগাযোগ করুন। বাংলাদেশ কনস্যুলেট আপনার পাশে দাঁড়াবে।

জলাবদ্ধতা ও দুর্যোগে দেশটির সরকারী ও রেডক্রিসেন্ট ইউএই'র পাশাপাশি একাধিক সেব সংস্থা ও বিভিন্ন রেস্তোরাঁ এবং ক্যাপটেরিয়া ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলে ফ্রি খাবার সর্বরাহ করছে। এছাড়াও ক্ষতিগ্রস্ত স্থাপনা ও বাড়িগুলো বিনামূল্যে মেরামত করবে বলে জানায় দেশটির সর্ববৃহৎ কনসেন্ট্রেশন প্রপার্টি ইমার গ্রুপ। শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) ইমার প্রপার্টির চেয়ারম্যানমোহাম্মদ আল-আব্বার।

উল্লেখ্য, ভারী বৃষ্টির করনে জলাবদ্ধতা ও ঝড়ের ফলে দেশটির বিভিন্ন অঞ্চঅন্তত ৫ জনের প্রাণ নাষের খবর পাওয়া যায়। এদের মধ্য একজন স্থানীয় নাগরিক একজন এশিয় নাগরিক ও অপর তিনজন ফিলিপিনের নাগরিক বলে জানা যায়। এছাড়াও আজমানের সানাইয়া এলাকায় কর্মসংস্থানে তড়িৎতাহত হয়ে এক এশিয় প্রবাসীর মৃত্যু হয়। তবে ভারী বর্ষণ ও ঝড়ের কবলে পড়ে প্রায় ১'শ ৫০ বাসিন্দা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এদের মধ্য অনেকেই চিকিৎসা নিয়ে নিজ বাসস্থানে ফিরে গেছেন এবং অনেকেই দেশটির বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। 

দুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে শুরু করলেও দেশটির আবহাওয়া বার্তা জানিয়েছে দুঃসংবাদ, আগামি সপ্তাহের সোমবার থেকে পূনরায় বৃষ্টি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে বলে জানায়।

মেসেঞ্জার/সজিব

Advertisement

Notice: Undefined variable: sAddThis in /mnt/volume_sgp1_07/tp4l1yw3zz9u/public_html/bangla/details.php on line 768